শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

কন্যা সন্তান হওয়ায় পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করল বাবা

উন্মুক্ত বার্তা অনলাইন :
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২০
  • ১৩৪ বার পঠিত

বরগুনার আমতলীতে পরপর কন্যা সন্তান হওয়ায় ৪০ দিনের শিশুকে পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করেছে বাবা নিজেই। জিদনী নামের ওই শিশুর ঘাতক বাবা জাহাঙ্গীর সিকদার।

এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের গোছখালী গ্রামের জাহাঙ্গীর সিকদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এর আগে শুক্রবার অজ্ঞাতনামা আসামিদের নামে নিহত জিদনীর মা সীমা বেগম বাদী হয়ে আমতলী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ সময় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জাহাঙ্গীর সিকদারকে থানায় নিয়ে আসলে তিনি মেয়েকে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

জানা গেছে, আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের গোছখালী গ্রামের জাহাঙ্গীর সিকদার ও সীমা দম্পতির সোহাগী (৯) এবং জান্নাতী (৩) নামের দুইটি কন্যা সন্তান রয়েছে। ২০১৯ সালের ৮ ডিসেম্বর ওই দম্পতির জিদনী নামের আরেকটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। বাবা জাহাঙ্গির কন্যা সন্তান জন্মের বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি। তিনি একটি পুত্র সন্তানের আশা করেছিলেন। এ কন্যা শিশু জন্মের পর থেকেই জাহাঙ্গীর ও তার স্ত্রীর মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ঝগড়া বিবাদ শুরু হয়। কন্যা সন্তান জন্মের পর থেকেই স্ত্রীর সঙ্গে খারাপ আচরণসহ জন্মের পর থেকে মেয়েটিকে একবারের জন্যও ছুঁয়ে দেখেননি তিনি।

তারা আরো জানান, শুক্রবার রাত ১০টার দিকে বাবা জাহাঙ্গীর সিকদার জিদনীকে নিয়ে ঘরে শুয়ে ছিল। এ সময় তার স্ত্রী সীমা বেগম এবং তার শাশুড়ি পারুল বেগম ঘরের বাইরে গৃহস্থলী কাজ করছিলেন। শিশুটির মা সীমা বেগম এবং নানি পারুল বেগম কাজ শেষে রাত ১১টার দিকে ঘরে প্রবেশ করে শিশু জিদনী ও তার বাবা জাহাঙ্গীরকে দেখতে না পেয়ে চিৎকার দেন। এতে প্রতিবেশী এবং বাড়ির অন্যরা ছুটে আসেন। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঘরের পেছনের ডোবা থেকে কাঁথায় মোড়ানো বিছানাপত্রসহ জিদনীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আমতলী থানা পুলিশ রাত ৩টার দিকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বাবা জাহাঙ্গীর সিকদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে বাবা জাহাঙ্গীর সিকদার কন্যা শিশুকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ময়না বেগম জানান, কন্যা সন্তান হওয়ার পর স্ত্রী সীমার সঙ্গে রাগ করে কোনো কথা বলত না স্বামী জাহাঙ্গীর সিকদার। সন্তান জিদনীকে নতুন কোনো কাপড়ও কিনে দেয়নি সে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার বলেন, একটি ৪০ দিন বয়সী শিশুকে হত্যার দায়ে তার বাবা জাহাঙ্গীর সিকদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শিশুটিকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন শিশুটির বাবা।

নিউজটি শেয়ার করুন

One thought on "কন্যা সন্তান হওয়ায় পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করল বাবা"

  1. Like!! Really appreciate you sharing this blog post.Really thank you! Keep writing.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 UnmuktoBarta
Theme Developed BY ThemesBazar.Com